Tips & Triks

ফ্রিতেই প্রতিদিন নিয়ে নিন ১০০ ঘন্টা ওয়াচটাইম

এই পোষ্ট টি দেখার পরে আপনি হয়তো প্রতিদিন একশো ঘন্টার মতো অস্টাইল আপনার চ্যানেলে count করাতে পারবেন এবং সম্পূর্ণ real way তে আর একটি কথা হলো এটা দিয়ে আপনি monitoration on করতে পারবেন চার হাজার ঘন্টা off time আপনি যেতে পারবেন কিন্তু ভিডিওর শুরুতে একটা হলো প্রাইভেট ভিডিও,

ডিলিট করা ভিডিও, আনলিস্ট ভিডিও সর্ট ভিডিও একটা থেকেও কিন্তু আপনার ওয়াস্ট টাইম কাউন্ট হবে না, পরবর্তীতে এগুলো বুঝিয়ে বলে দিবো মেন ইনফরমেশন গুলো প্রথমে রাখার চেষ্টা করি যে আপনি কিভাবে আপনার off time গুলো count করবেন তাই ভিডিও টি আপনার জন্য গুরুত্বপূর্ণ. কারণ আপনি এই ভিডিও তে দুই রকম হয়ে দেখতে পাচ্ছেন.

প্রতিদিন ১০০ ঘন্টা ওয়াচটাইম পাওয়ার উপায়

Fast কিভাবে আপনি count করবেন এবং second কোন কোন কারণ গুলোতে আপনার ভিডিওটি count হবে না. খুবই গুরুত্বপূর্ণ আপনার off time টি বাড়ানোর জন্য আমি আপনাকে বুঝিয়ে বলার চেষ্টা করি. প্রথমে আপনি মনে করেন যে আপনার এখন right now আপনার চ্যানেল এ হয়তো আপনি ভিডিও upload করেছেন দশটি কেউ হয়তো ভিডিও আপলোড করেছে বিশটি,

কেউ হয়তো তিরিশটি, এই তিরিশটি ভিডিওকে আপনি ফার্স্ট টাইম একটি পেলের লিস্টটাকে রেডি করে ফেলেন.

ভিডিওগুলোকে প্লেস্টে রেডি করার পরে আপনি যে কাজটি করতে পারেন আপনার পেলেন নাম দিবেন, কিন্তু নামটি দিবেন বড়. অবাক হওয়ার কিছু নেই নাম দেওয়া যায়, নামটি সম্পূর্ণ বড় একটি কোন রকম নাম রাখবেন এবং রাখার পরে আপনি বিশজন মানুষকে target করেন যেটা হলো আপনার relative এর ভেতরে অথবা বাইরের country তে focus করবেন.

হয় আপনার relative এর ভেতরে অথবা বাইরের country তে যারা বসবাস করে হয়তো দেখবেন যে আপনার আত্মীয় স্বজনের ভেতরে আছে. এবার যে আপনি নামটি রেখেছিলেন আপনার plane এর list এ তাদেরকে ফেলে লিঙ্ক দেবেন না।

কিন্তু তাদেরকে হুবহু ওই নামটি দিয়ে search করতে বলবেন. আপনার বন্ধুত্বের খাতিরে হয়তো তারা ওই নামটি দিয়ে search করবে. এবং তাদেরকে বলবেন ওই পেনাল্টি পেলে করে রাখতে দিনে একবার ভালো করে বুঝবেন.

দিনে একবার এবং সে প্রথম দিন পেলে করে রেখে দিল সম্পূর্ণ মিষ্টি ভিডিও সে দেখে নিল just play করে রেখে দিল. তারপরে কিন্তু সে আর দেখবে না. কমপক্ষে হলেও সে তিনদিন পাস করবে. কমপক্ষে হলেও সে তিন দিন পাস করবে কারণ YouTube এ কিন্তু দুই থেকে তিন দিন পরে পরে অস্ট্রেমটি এনালাইটিস এ কাউন্ট হয়ে যায়।

ফ্রি ১০০ ঘন্টা ওয়াচটাইম নিন

তিন দিন যখন পাস্ট হয়ে যাবে সে সেম ওয়ে তে সেম পদ্ধতিতে আবারও আপনার ভিডিও দেখতে পারবে এবং ওই সম্পূর্ণ অস্টিমটা Monitoration এ count হবে কোন রকম অসুবিধা ছাড়া আপনি চাইলে টিম wise ও কাজ করতে পারেন কিন্তু খেয়াল রাখবেন.

যেন সে বার বার না দেখে ফেলে সে দুই তিন দিন পরে আপনার এই players টি পেলে করে. Number two যে বিষয়টা থাকবে হলো data আপনি চাইলে এটা নিজে করতে পারবেন, তবে খেয়াল রাখতে হবে যেন Wi-Fi না হয় data use করবেন. আপনি বলতে পারেন যে data use করে কিভাবে করব?

ওই same process টা আপনি play list টাকে তৈরি করে নিবেন. আপনার বাসায় যতগুলো ফোন আছে ফোন গুলাকে কি reast DA তার data সম্পূর্ণ clean করে নিন, যদি আপনার personal document থাকে সেগুলো save করে নিতে পারেন.

নেওয়ার পরে আপনি ওই pain list টি, আপনার কোন একটি mobile এর data use করে পেলে করবেন? পেলে করার পরে প্রথম দিন আপনি একটি data দিয়ে দেখে নেবেন. খেয়াল রাখবেন যেন IP act না হয়ে যায়.

প্রথম দিন data দিয়ে দেখে নিন. দেখে নেওয়ার পরে পরবর্তীতে ওই তিনদিনের জন্য ওই mobile একে কোন রকম ভাবে play করবেন না. এবং পরবর্তী ফোনে আপনি data কিনলেন data দিয়ে same way তে play করলেন. Play করার পরে আপনার কাছে হয়তো দুইটা ফোন আছে. দুইটা ফোন দিয়ে যদি আপনি তিন থেকে চার দিন পর পর আপনার data কিনে যদি দেখেন এবং যদি আপনার মোবাইলটা সম্পূর্ণ ক্লিন করতে পারেন.

নিয়ে নিন ফ্রি ওয়াচটাইম

সেইক্ষেত্রে আপনার অস্ট্রেলটি কাউন্ট হবে কোনোরকম অসুবিধে ছাড়াই তারপরে আর একটি কাজ করতে পারেন সেটা হলো ইনস্কেন্ট আমরা যখন কোনো ভিডিও তৈরি করি আপনি দেখবেন যে আমার ভিডিও শেষ হবার পরেই সাথে সাথে দেখবেন, যাতে in screen চলে আসে দুই সাইডে দুইটা ভিডিও পেলে হয়ে যায়.

মানে দুই সাইড এ দুটো ভিডিও চলে আসে. তো আপনার ভিডিও টি যখনই আপনি আপলোড করবেন, আপলোড করার পরে ইন স্কিন আপনি setup আমার চ্যানেলেও দেখবেন যে এই বিষয়ের ওপরে ভিডিও দেওয়া আছে অথবা YouTube এ search দিলে দেখবেন যে অনেক ভিডিও আপনি পেয়ে যাবেন যে কিভাবে in skin set up করতে হয়.

তাহলে যে সুবিধাটি আপনার হবে যখন আপনার others গুলো public আপনার ভিডিও টি দেখতেছে যখন সে ভিডিও থেকে চলে যাবে আপনি যদি তাকে আরো দুইটা ইম্পরট্যান্ট ভিডিও আপনার সামনে শো করাইতে পারেন.

সেক্ষেত্রে সে ওই ভিডিওতে ক্লিক করতে পারে এবং ঐখান থেকেও আপনি কিন্তু ভালো রকম অস্টাইন জেনারেট করতে পারেন. তারপরে যে বিষয়টি হলো সেটা হলো লাইভ history কিন্তু লাইভ history করার পরে এখানে most একটা important ব্যাপার add হয়ে গেছে সেটা হলো ভিডিও আপনি private করতে পারবেন না, ভিডিও আপনি delete করতে পারবেন না. আপনি যদি কোনো live stream করেন,

মনে করেন যে আপনার চ্যানেলে suppose subscribe আছে দুই আপনি লাইভ history করলেন সেখান থেকে কিছু সংখ্যক পরিমাণ মানুষ একটিভ আছে আপনি যেকোনো বিষয়ে লাইভ স্টিম করতে পারেন. কিছু সংখ্যক পরিমান মানুষ অ্যাক্টিভ থাকার পরে আপনার যতটুকু অস্টাইন কাউন্ট হল ওই ভিডিওটি যদি আপনি ডিলেট না Private না করেন যদি live history টি upload করে দিন,

ফ্রি ইউটিউব ওয়াচটাইম পাওয়ার উপায়

কারণ live history শেষ হওয়ার পরে কিন্তু ওখানে upload option আসে, আপনি যদি upload করে দেন, সেক্ষেত্রে প্রতিটা off time ই আপনার কিন্তু monitoration এ count হবে এবং যদি দিনে অথবা সপ্তাহে আপনি একবার করেও live history করতে পারেন দেখবেন যে ভালো রকম একটি অস্টাইল আপনি কাউন্ট করতে পেরেছেন,

কারণ একটা মানুষকে যদি আপনি তিন মিনিটও রাখতে পারেন, তিন মিনিট কিন্তু অনেক, একটা মানুষকে যদি আপনি একশো মানুষকে যদি তিন মিনিট তিন মিনিট করে রাখতে পারেন, আপনি নিজে ক্যালকুলেশান করে দেখেন যে আপনার চ্যানেলের উপরে ডিফেন্ড করে যে আপনি কিভাবে মানুষকে রাখবেন কিন্তু আপনি রাখতে পারলে ভালো রকম অস্ট্রেলিয়াতে কাউন্ট করতে পারবেন.

তারপরে যে বিষয়টি দেখা গেলো সেটা হলো গুগল এডসের মাধ্যমে আপনি চাইলে এটা করতে পারেন. পরমোশন করে করতে পারেন. আপনি আমার ভিডিওতে হয়তো এটা দেখেছেন.

আমি দুইটা থার্মাল যেকোনো একসাইডে দিয়ে দেবো আমার ভিডিও এখনো আপলোড করা আছে. এই দুইটা ভিডিও যদি আপনি দেখেন তাহলে বুঝতে পারবেন যে কিভাবে চার হাজার ঘন্টা অস্ট্রেলিয়া আমরা count করেছিলাম এবং একদিনের ভেতরে মনিটরিং অন করেছিলাম. যদি invest করতে চান,

সেক্ষেত্রে এই দুটো ভিডিও দেখবেন না হলে কোনো দরকার নেই, আপনি প্রথম তিনটে থেকে চারটা way apply করতে পারেন. এবার ভিডিও শুরুতে বলেছিলাম যদি private করেন, অথবা unlished করেন, অথবা delete করেন,

সেক্ষেত্রে আপনার monitoration এর হরে কোনোরকম অস্থায়ী কাউন্ট হবে না, এবার বিষয়টি ভেঙ্গে বলে দিই. মনে করেন যে আপনি কোনো একটি ভিডিও আপলোড করেছেন, হিউজ পরিমান ভিউজ চলে আসলো আপনি মনে করলেন যে সাথে সাথে ওই তো লোকের ভিডিও ছিল, ভিডিওটি প্রাইভেট করে দেয়, অথবা কপিরাইট করে ভিডিওটি নিয়ে এসেছিলাম, এখন ভিডিও টি আমি delete করে দে আপনার এক পার্সেন্ট ও wasting কিন্তু count হবে না.

আবার মনে করলেন যে আপনি লাইভ histing করেছেন এখন তো আপনার ভিডিও টি দেখতে খুব একটা ভালো লাগতাছে না আপনার চ্যানেল এর সৌন্দর্য নষ্ট হয়ে যাচ্ছে. আপনি এটা delete করে দিলেন. সেক্ষেত্রে কিন্তু আপনি এক পার্সেন্ট অস্টাইন কাউন্ট হবে না, তাই আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে,

আপনি যেটাই করেন সেটা আপনার ভিডিও পাবলিশ টাকা লাগবে এবং আপনার চ্যানেলে থাকা লাগবে, সেক্ষেত্রে আপনার অস্টেমটি কাউন্ট হবে, অনেকে মনে করেন যে আপনি Monitoration পাওয়ার পরে সাথে সাথে delete করে এই ভুলটু করলে কিন্তু আপনার Monitoration চলে যাবে.

কমপক্ষে আপনি একমাসের মতো আপনার চ্যানেলে ওই ভিডিও গুলো রাখবেন সেক্ষেত্রে যে সুবিধাটা হবে others ভিডিওর off টাইম এবং others ভিডিও র যে views গুলো আসতে আসতে আপনার চ্যানেলে যখন জমা হয়ে যাবে,

তখন Monitoration টা যাওয়ার কোনো সম্ভাবনাই থাকবে না. আর যদি আপনি subscribe এর প্রয়োজন পড়ে, তাহলে দেখবেন যে আমি আর একটি ভিডিও upload করেছি যেটাতে আমি দেখিয়েছি যে একশো করে দিনে কিভাবে subscribe নিতে পারেন পোষ্টে এ হয়তো লিঙ্ক দিয়ে দিব.

ওই ভিডিওটিও দেখতে পারেন. সব কিছুই apply করার পরও যদি আপনি দেখেন যে আপনার দ্বারা সম্ভব হচ্ছে না এই watch time এই subscriber gain করা সেই ক্ষেত্রে আপনি boosting এর সাহায্য নিতে পারেন, video এর description এ number দেওয়ার চেষ্টা করবেন সেখান থেকেও contact করতে পারেন.

শেষ কথা

তো এই ছিল আজকের পোষ্ট পোষ্টটি আপনার কাছে অনেক উপকারে এসেছে. ভিডিওটি ভালো লাগলে নিচে কমেন্ট বক্সে জানাবেন এবং যদি নতুন কোন বিষয়ের উপর ভিডিও চান, সেটাও কমেন্ট বক্সে জানাবেন. ধন্যবা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button